‘শিক্ষক’ শব্দটি তিন অক্ষরের মেলবন্ধন যা অনন্তকাল প্রবাহমান। তিন অক্ষরের এই শব্দটি তখনই সার্থক হবে, যখন এই শব্দের বাহক এই মহান পেশাকে হৃদয়ে ধারণ করতে পারবে। কারণ ‘শিক্ষকদের ভুল করার সুযোগ নেই’। আমার দৃষ্টিভঙ্গিতে ‘শিক্ষক’ শব্দটি নিম্নরূপ:- শি – শিখাবো মোরা সততা নিয়ে। ক্ষ – ক্ষমতা নয় সক্ষমতা দিয়ে। ক – কর্ম পরিকল্পনার ডালি সাজিয়ে। পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকে আজ পর্যন্ত যত নবী, রসুল বা মনীষী এবং স্মরণীয় ব্যক্তিগণ এসেছেন, তাঁরা যদি জাগতিক সুখ বা মোহের বেড়াজালে আবদ্ধ থাকতেন, তাহলে আমরা আজ তাঁদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতাম না।

একজন শিক্ষক তিনি যে ধর্মেরই হোক না কেন, তাঁর আত্মা হতে হবে পরিশুদ্ধ ও নির্মল। আমাদের প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের হৃৎপিন্ড পরিশুদ্ধ করার জন্যে মহান আল্লাহ, বালক বয়সে তাঁর হৃৎপিন্ডকে হযরত জীবরাইল আ: এর মাধ্যমে বাইরে বের করে পবিত্র জমজম কূপের পানিদ্বারা ধুয়ে আবার প্রতিস্থাপন করেছিলেন কারণ তিনি যেন শুদ্ধ শিক্ষক হিসেবে শিক্ষাদান করতে পারেন। পৃথিবী বিখ্যাত দার্শনিক ও শিক্ষক সক্রেটিস ছিলেন শিক্ষক সমাজের আইকন। তিনি জাগতিক সুখ বা মোহে আবদ্ধ না হয়ে প্রকৃত শিক্ষকের ভূমিকা পালন করেছিলেন। তবুও তৎকালীন এথেন্সের শাসকগোষ্ঠী তাঁকে মৃত্যদন্ড দিয়েছিলেন। এতে সক্রেটিসের হয়তো জীবন বিসর্জন দিতে হয়েছিল, কিন্তু তিনি আজও বেঁচে আছেন বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে একজন স্মরণীয় ও বরণীয় শিক্ষক হিসেবে।

একজন প্রকৃত শিক্ষক হবেন আদর্শবান, অনুকরণীয়, শালীন, মার্জিত, কৌশলী ও সাহসী। উত্তম আদর্শের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলবেন কালের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে। একজন শিক্ষকের কথা ও কাজে অবশ্যই মিল থাকতে হবে। শিক্ষককে অবশ্যই বন্ধুবৎসল ও আস্থাশীল হতে হবে যেন শিক্ষার্থীরা তাদের মনের চাওয়া নির্দ্বিধায় প্রকাশ করতে পারে। অপরদিকে রাষ্ট্রের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হল, একজন প্রকৃত শিক্ষককে সর্বোচ্চ সম্মানিত অবস্থানে রাখা।

শিক্ষক যদি দৈনন্দিন জীবনের চাহিদার পিছনে ছোটে তাহলে আপনার সন্তান প্রকৃত শিক্ষাপ্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হবে। মনে রাখবেন, ‘শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড’ হলে ‘শিক্ষক শিক্ষার মেরুদন্ড’। সুতরাং একটি সুশিক্ষিত জাতি গঠন করতে হলে এবং দেশকে সঠিক ধারায় পরিচালিত করতে হলে অবশ্যই শিক্ষকদের প্রয়োজনীয় চাহিদা মেটাতে হবে সর্বাগ্রে। আজ আপনি রাষ্ট্রের যতবড় গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানেই থাকেননা কেন, আপনিও কোন না কোন শিক্ষকের কাছ থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে আজ এই অবস্থানে এসেছেন।

শাহ মোঃ জিয়াউর রহমান স্বাধীন

সাবেক প্রধান শিক্ষক সিটি গার্লস স্কুল, খুলনা।

01711965338

shadhin72@gmail.com

5 thoughts on “বিশ্ব শিক্ষক দিবস-২০২২।এবারের প্রতিপাদ্য – পরিবর্তনশীল গতিপথ, রূপান্তরিত শিক্ষা।”
  1. I do not even know how I ended up here, but I believed
    this publish used to be great. I do not know who you are
    but certainly you are going to a famous blogger in case you aren’t already.

    Cheers!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *